স্বাস্থ্য টিপসহারবাল

যৌনশক্তি বাড়ানোর প্রাকৃতিক উপায় | জেনে নিন বিস্তারিত

একজন পুরুষ বিবাহিতই হোক বা অবিবাহিতই হোক, যখন সে অতিরিক্ত বীর্য ক্ষয় করে ফেলে, দেহকে বীর্য শুণ্য করে ফেলে তখনই সে পুরুষত্ব হারিয়ে ফেলে। তার যৌনশক্তি বাড়ানোর প্রাকৃতিক উপায় গুলো জানা উচিত।

পুরুষাঙ্গের গোড়ার দুই পাশে ২টি বীর্য থলি থাকে। এই থলিতে যখন বীর্য পরিপূর্ণ ভাবে জমে থাকে, এবং ঘন বীর্য থাকে তখনই শরীর ও মন সুস্থ থাকে। মনে আনন্দ ও স্ফুর্তি থাকে। মনে প্রচন্ড কামভাব থাকে।

তখন পুরুষাঙ্গ ঘন ঘন শক্ত ভাবে উত্তেজিত হয় ও দীর্ঘক্ষন উত্তেজিত অবস্থায়
থাকে। সমস্ত শরীর ও মনে প্রচন্ড কামভাব থাকে।

রোগীর ধারনা :

তাই যারা ভাবেন, কিছুদিন ঔষধ খেলেই হয়ত, আপনার সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে। বা বিভিন্ন কৌশল অবলম্ভন করলেই আপনি আপনার যৌনসঙ্গমে এক্টিভিটি বেড়ে যাবে!ভুল শিখানো হচ্ছে! আপনাকে অজ্ঞতার সাগরে ডুবিয়ে রাখা হচ্ছে।

আমার কথা বিশ্বাস না হলে, আজকে ট্রাই করবেন। যুক্তি দিয়ে মিলিয়ে নিবেন। আজ সন্ধ্যায়, ১০০ গ্রাম আঙ্গুর খাবেন, ১ টা ডিম খাবেন, ও ১ গ্লাস দুধ খাবেন। এবং রাতে কোন কৌশল ছাড়াই যৌন মিলন করবেন। পার্থক্য দেখুন, কি! পরিবর্তন টের পেলেন?

এখানে যদি কিছু টের পান! তাহলে অজ্ঞ ও নির্বোধদের কথায় কান দিবেন না। যৌন শক্তি বাড়ানোর জন্যও কিছু খেতে হয় এটা মনে রাখবেন। যারা আপনাকে কৌশল শেখাচ্ছে, তারাও হয়ত রাতের আধারে আফসোস করে, তাদের ব্যার্থতার জন্য। হয়ত তারাও কিছু খোজে বেড়ায়।
আমি কৌশলের বিরোধী নই, বরং খাদ্যশক্তি ও কৌশল দুটোকেই সাপোর্ট করি। যৌনসঙ্গমকে যদি একটি ক্রীড়া হিসাবে বিবেচনা করা হয়, তাহলে খেলোয়ারদেরকেও অনুসরন করা যেতে পারে। যেমন একজন খেলোয়ার কৌশল শিখে, আবার বাড়তি একটু খাবারও তার খাদ্য তালিকায় রাখে।

আবার আপনি যদি, ক্যালরীর হিসাবটা দেখেন। একজন ভারী পরিশ্রমী মানুষের সারাদিনে কমপক্ষে ৩৫০০ ক্যালরী শক্তির প্রয়োজন, যা তার খাদ্য তালিকায় না রাখলে, কর্মক্ষমতা হারাবে। কিন্তু যিনি ভারী পরিশ্রম করেন না, তাকে শুধু ২৫০০ ক্যালরী খাদ্য শক্তি হলেও চলবে। যাক, বেশী বলবনা।

শুধু তালমাখনা ও কাথিলা সম্পর্কে গুগল মামার কাছ থেকে জেনে নিবেন। এখানেও যদি ঘার তেরামী করেন! তাহলে আপনি নির্বোধ! গুগলের বিশ্বস্ত ওয়েবসাইটগুলোতে সার্চ করুন। আর এসব সম্পর্কে ধারনা নিন।
এবং বুঝে আসলে, এগুলো সংগ্রহ করে নিয়মিত খেয়ে যান। কতদিন খেতে হবে, এ প্রশ্ন করবেননা। যতদিন চাহিদা আছে, ততদিন খাবেন। সাইট এফেক্ট আছে কিনা, বেকুবের মত এমন প্রশ্ন করবেননা।

বিভিন্ন কবিরাজের সাথে যোগাযোগ করতে পারেন। তাদের কাছে উপাদানের কথা বলে সেখান থেকে, মিক্স সেভেন নিতে পারবেন, এতে আছে – ত্রিফলার মত সর্বজন স্বীকৃত মহাপথ্যসহ এমন এক মিশ্রন! দাম কম হলেও, জ্ঞানী ও ভেষজপ্রিয় ব্যাক্তিদের নিকট অতিমুল্যবান একটি মিশ্রন হার্বস। আরও আছে ইসুবগুল দানা, পাটনাইয়া তোখমাদানা, তালমাখনা, কাতিলা গাম, মোট ৭ টি মহামুল্যবান হার্বস এর মিশ্রনকে ” মিক্স সেভেন ” বলে ডাকা হয়। এছাড়াও যৌনশক্তি বাড়ানোর প্রাকৃতিক উপায় নিয়ে ইন্টারনেটের ভিবিন্ন জায়গায় সার্চ করে আরও জানতে পারবেন।

দ্রুতবীর্যপাত :

এছাড়াও আপনি এই মিশ্রন নিজেও বানাতে পারবেন। বানিয়ে ট্রাই করে দেখুন। এগুলোতে কাজ হয়না, একথা তারাই বলে, যারা অজ্ঞ, ও ভেষজ জ্ঞানহীন মুর্খ। দুতরা পাতা খেলে যদি পাগলামী করে, চুতরা পাতা গায়ে লাগালে চুলকায়, নিম পাতা তিতা, তুলশীতে কফ সারে, শাক সবজীতে আশযুক্ত মিনারেল আছে, এসব যদি বিশ্বাস হয়, তাহলে এই ৭ টি উপাদানে যৌনশক্তি বাড়ে এটা কেন বিশ্বাস হয়না ভাই ! এটা নিচক কিছু লোকের হিংসামী ছাড়া আর কিছু নয়। তারা চায়না, এদেশে তাদের কদর কমে যাক। দ্রুতবীর্যপাত এড়াতে এরা কেমিক্যাল বিক্রয় করে খুব কৌশলে।

তবে সাধারন মানুষের বিশ্বাস আজীবন ছিল এবং থাকবে। তবে ভেষজের সাথে কিছু কবিরাজ নামক কুলা*ঙ্গাররা বেইমানী করায়, কিছু অবিশ্বাস ঢুকে গেছে। এদের থেকেও সাবধান থাকবেন। এদের ঔষধ ২৪ ঘন্টায় ফলাফল আসবে। এরাই বাটপার! এরা কেমিক্যাল ব্যাবহার করছে। এদের মুখোশ খুলে দিবেন, যদি পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

eleven + eight =

Back to top button